ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গ ইউনিট ইংরেজিঃ ভয়কে জয় করো, মজা নিয়ে পড়ো

Vocabulary ও Grammar সহজে পড়ার কৌশল ও প্রয়োজনীয় বইয়ের তালিকা নিয়ে এই ব্লগে টিকরাইট তোমাকে সাহায্য করবে গ ইউনিটের ইংরেজি পরীক্ষার জন্য সেরা প্রস্তুতি নিতে।

আগের ব্লগটায় তুমি দেখেছো গ ইউনিটের ভর্তির ন্যূনতম যোগ্যতা এবং প্রশ্নের ধরণ। এখন যেহেতু জানো কীভাবে কী পড়তে হবে, চলো শুরু করা যাক প্রস্তুতি।

গ ইউনিটের সবচেয়ে ভয়-পাওয়া বিষয় হচ্ছে ইংরেজি। এর কারণ, আর কোনো বিষয়ে আলাদা পাস মার্ক না থাকলেও ইংরেজিতে আছে – ১৫তে কমপক্ষে ৫ পেতে হবে। এই ৫ না পেয়ে বাকি সব বিষয়ে ফুল মার্কস পেলেও লাভ নেই – মেধা তালিকায় তোমার নাম উঠবে না।

এই restriction থাকার কারণে স্বাভাবিকভাবেই গ ইউনিট ইংরেজি নিয়ে ভয় আছে অনেকের। বিদেশি ভাষা হওয়ায় এবং ইংরেজি পড়ানোর ক্ষেত্রে কোনো সুনির্দিষ্ট সহজ পদ্ধতি না থাকায় অনেকেই ছোটবেলা থেকে ইংরেজি ভয় পায়।

তাছাড়া এখন এমসিকিউয়ের পাশাপাশি লিখিত পরীক্ষা যুক্ত হয়েছে, ফলে তোমার ফ্রি-হ্যান্ড রাইটিং-এর সক্ষমতাও দেখা হবে, যা অনেকের জন্যই আতঙ্কের কারণ। সব মিলিয়ে পরিস্থিতি খুবই বিরূপ হয়ে দাঁড়ায়।

WORD OF CAUTION

একটা সত্যি কথা বলি। গ ইউনিটের ইংরেজির জন্য প্রস্তুতি নেওয়ার আগে একটা ব্যাপারে মানসিক প্রস্তুতি নিতে হবে । সেটা হলো, এইচএসসি পর্যন্ত ইংরেজির যত নিয়মকানুন শিখেছো, তার অনেকগুলোই ভুলে যেতে হবে।

ন্যাশনাল কারিকুলামের শিক্ষা ব্যবস্থায় এইচএসসি পর্যন্ত আমাদের শেখানো হয় ব্রিটিশ ইংরেজি, কিন্তু ভর্তি পরীক্ষা নেওয়া হয় আমেরিকান ইংরেজির উপর।

অনেক বানান, নিয়ম, sentence structure আলাদা থাকবে। তাই যখনই দেখবে ভর্তি পরীক্ষার পড়া পড়তে গিয়ে ইংরেজির কোনো রুল HSC এর শেখা রুলের সাথে মিলছে না, গুগলে সার্চ করে নিশ্চিত হয়ে নেবে যে এটা আমেরিকান রুল কিনা।

যদি সম্ভব হয় কোনো শিক্ষককে জিজ্ঞেস করে নেবে কারণ ইন্টারনেটে বিভিন্ন context অনুযায়ী উত্তর দেওয়া থাকে যা অনেক সময় তোমাকে আরও confused করতে পারে। এক্ষেত্রে HSC-তে পড়া রুল সঠিক হলেও শুধু ব্রিটিশ রুল হওয়ার কারণে ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্ন solve করার জন্য ওই রুল ব্যবহার করতে পারবে না।

Vocabulary

এবার আসি মূল প্রস্তুতিতে। গ ইউনিটের প্রস্তুতিতে বেশিরভাগ মানুষকে একটা জিনিস নিয়েই কথা বলতে শুনবে – সেটা হচ্ছে vocabulary। তারা বলবে vocabulary ছাড়া চান্স পাওয়ার কোনো আশা নেই।

কথাটা কিন্তু সত্যি। কারণটা বুঝতে হলে প্রথমে তোমার জানতে হবে vocabulary কী জিনিস।

Vocabulary হচ্ছে শব্দভাণ্ডার – তুমি কী পরিমাণ শব্দ জানো তাই তোমার vocabulary। এই যে এই বাক্যটা পড়তে পারছো, তোমার basic বাংলা vocabulary আছে বলেই পারছো। ঠিক তেমনি ইংরেজিতে তোমার vocabulary পরীক্ষা করা হবে।

Types of vocabulary questions

Vocabulary question আমার মতে তিনভাবে আসতে পারে। যেমনঃ

১। Direct Vocabulary

যেমনঃ Which one is the synonym of illogical?
A. Fallacious B. Stolid C. Resplendent D. Disenchant.

অথবা,
Which is the opposite of pernicious?
A. Tumultuous B. Virtuous C. Salacious D. Chivalrous.

২। Contextual Vocabulary

বাক্যে কোন অর্থে ব্যবহৃত হয়েছে সেটা নির্ণয় করার জন্য context অনুযায়ী উত্তর চাওয়া হবে। যেমনঃ

“Her face turned white as soon as she saw the evil spirit lurking in her corridors.” What does the word ‘white’ mean in this sentence?
A. fair B. beautiful C. pale D. painted.

অথবা,
“The pride of the majestic beasts was walking through the jungle as if it owned the land.” Here ‘pride’ means the following:
A. resource B. arrogance C. snobbery D. group.

এসব প্রশ্নের উত্তর করতে হলে তোমাকে একই শব্দের বিভিন্ন অর্থ জানতে হবে এবং বাক্য পড়ে বুঝতে হবে যে এই নির্দিষ্ট বাক্যে কী অর্থে ব্যবহৃত হয়েছে। দেখা যাবে যে চারটি option-ই শব্দটির সঠিক অর্থ। কিন্তু বাক্য অনু্যায়ী অর্থ একটাই প্রযোজ্য হবে।

৩। Concealed Vocabulary

নাম শুনেই হয়তোবা আন্দাজ করে নিয়েছ। সাদা চোখে দেখলে এটাকে vocabulary question-ই মনে হবে না, কিন্তু vocabulary না থাকলে এই প্রশ্নের উত্তর দেওয়া সম্ভব না। যেমনঃ

His father was exhilarated that he mitigated his fight with his wife because the old man ___ the woman. Which word best suits the blank in this sentence? A. adored B. loathed C. followed D. alienated.

এই বাক্যে exhilarated এবং mitigated-এই দুটি শব্দের অর্থ না জানলে সঠিক উত্তর বোঝা সম্ভব না। অর্থাৎ সরাসরি কোনো শব্দের অর্থ জানতে না চেয়েও তোমার vocabulary পরীক্ষা করে নেওয়া হচ্ছে।

How to Study Vocabulary Effectively & Efficiently

Vocabulary মনে রাখতে পারি না – এটা একটা কমন অভিযোগ।

কাকেই বা দোষ দেবে? জীবনেও শোনোনি, ব্যবহার করোনি – এমন দাঁতভাঙা শব্দ যখন পৃষ্ঠার পর পৃষ্ঠা পড়ে যেতে হয়, সাথে অন্য বিষয়ের পড়া তো আছেই, মনে না থাকাটাই স্বাভাবিক।

বই পড়ার অভ্যাস আছে কি?

তোমাদের যাদের আগে থেকে ইংরেজি গল্পের বই, পত্রিকা বা আর্টিকেল পড়ার অভ্যাস ছিলো, তারা এক্ষেত্রে একটু বিশেষ সুবিধা পাবে। কারণ অনেক শব্দই তোমরা আগে থেকে জেনে থাকবে, যা শুধু ক্লাসের পড়া দিয়ে জানা সম্ভব না।

তাছাড়া তোমরা আলাদা আলাদাভাবে শব্দ না পড়ে বাক্যে ব্যবহার করে কন্টেক্সট সহ পড়েছ। ফলে মুখস্থ করার যে অতিরিক্ত চাপটা মস্তিষ্কে পড়ে, সেটা তোমাদের পড়েনি, বরং গল্পের ছলেই তোমরা শব্দ এবং তার ব্যবহার শিখেছ।

Highlighter বা রঙিন কলম নিয়ে কাজে লেগে পড়ো

এখন ধরে নিলাম তোমার আগে থেকে ইংরেজি বই বা পত্রিকা পড়ার অভ্যাস ছিলো না। তাহলেও কিছু সহজ উপায় আছে vocabulary পড়ার।

যাদের বই দাগানোর অভ্যাস নেই, অভ্যাসটা করে ফেলো। কাজে দেবে। যখন vocabulary পড়তে বসবে, সাথে দুই কালির কলম নেবে। একটা দিয়ে দাগিয়ে রাখবে সেসব শব্দ যেসব জীবনেও শোনোনি। আরেকটা দিয়ে দাগাবে যেগুলো শুনেছ কিন্তু বারবার পড়লেও মনে থাকে না।

বাক্য গঠন করো

সবগুলো দাগানো শব্দের বিভিন্ন অর্থ, form (tense, number, person অনুযায়ী), ব্যবহার ইন্টারনেটে দেখে নেবে। এর পর সেগুলো দিয়ে নিজে নিজে বাক্য গঠন করবে। সম্ভব হলে কোনো এক্সপার্ট বা শিক্ষককে দেখাবে।

এই সুবাদে Merriam Webster এর ওয়েবসাইটটি check করে আসতে পারো। ওয়েবসাইটের official search button এ তোমার যে শব্দ নিয়ে confusion তা বসিয়ে Press Enter.

ছু মন্তর ছু! একসাথে পেয়ে যাবে সেই word-টির-

  • Meaning
  • Synonyms and Antonyms
  • Sentence এ application
  • More example sentences
  • উচ্চারণ

এমনকি শব্দটির প্রচলন ও ইতিহাস নিয়েও মজার গল্প পেয়ে যেতে পারো।

বাক্য গঠন করার মাধ্যমে শেখার পদ্ধতিটা আলাদা আলাদাভাবে শব্দ শেখার চেয়ে বেশি কাজে দেয় কারণ বাক্য গঠন করতে হলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে মস্তিষ্কে একটি scenario তৈরি হয়, যা শব্দ ও অর্থ মনে রাখতে সাহায্য করে।

Flashcard এবং Mnemonics

আরো কিছু পদ্ধতি যেগুলো অনেকের ক্ষেত্রেই কাজে লাগে সেটা হলো flashcards এবং mnemonics ব্যবহার করা।

Flashcards-এর ক্ষেত্রে কিছু কার্ডের এক পাশে root word এবং অন্য পাশে definition, example ইত্যাদি লেখা থাকে। Flashcard-গুলো ব্যাগ বা পকেটে ভরে যেকোনো জায়গায় নিয়ে যাওয়া যায় এবং root word লেখা পাশটা দেখে অন্য পাশের অর্থ ও উদাহরণ অনুমান করে শেখা যায়। পরে কার্ড উল্টে নিয়ে অনুমান সঠিক হলো কিনা তাও দেখা যায়।

Mnemonic পদ্ধতির ক্ষেত্রে শব্দকে এমনভাবে চিত্রায়িত করা হয় বা ভেঙে নেওয়া হয় যাতে সহজে মনে থাকে। ছোটবেলায় সবাই কমবেশি mnemonics ব্যবহার করেছি – lieutenant মনে রাখতে lie-u-ten-ant বা ‘মিথ্যা তুমি দশ পিঁপড়ে’ বানিয়ে নেওয়া অথবা মাথায় কোনো ছবি তৈরি করার মাধ্যমে কোনো শব্দ মনে রাখা – এগুলো সবই mnemonic।

Vocabulary পড়ার জন্য প্রতিদিন সময় করতে হবে, যেভাবেই হোক। আধা ঘণ্টা হোক বা এক ঘণ্টা, প্রতিদিন অনুশীলন না করলে মনে রাখাটা কঠিন হবে।

দিনশেষে তুমি যে পদ্ধতিতে সবচেয়ে সহজে মনে রাখতে পারছো, সেটা ব্যবহার করাই উত্তম। কারণ, তোমার হাতে সময় এখন কম।

Preposition, One-word substitution & Analogy

Preposition, one-word substitution, analogy নিয়ে আসলে আলাদা ভাবে টিপস দেওয়ার মতো কিছু নেই। বারবার অনুশীলনই এখানে মূলমন্ত্র। Preposition থেকে প্রতি বছরই যথেষ্ট প্রশ্নের দেখা পাওয়া যায়, তাই প্রতিদিন vocabulary পড়ার পাশাপাশি preposition-ও সময় করে পড়ে নিও।

Grammar

Grammar-এর ক্ষেত্রে তোমাকে এমন অনেক নতুন জিনিস শিখতে হবে যা আগে হয়তো শোনোওনি। তবু কিছু কমন বিষয় পরীক্ষায় প্রতি বছর আসে – যেমন parallelism, modifier, relative clause, determiner, tense, modals ইত্যাদি। যেকোনো প্রশ্নব্যাংক দেখলেই বুঝতে পারবে এসব প্রশ্নের percentage কত বেশি।

এসব মনে রাখার উপায় খুব কঠিন কিছু না। প্রতিদিন পড়ারও দরকার হয় না। প্রত্যেকটা রুল এবং রুল-এর ব্যতিক্রম-এর দুই-তিনটি করে উদাহরণ নোট খাতায় রুলসহ লিখে রাখবে এবং মাঝে মাঝে দেখবে।

মোট তিনটি কালি ব্যবহার করতে পারো – রুল লিখবে এক কালিতে, রুল-এর উদাহরণ লিখবে আরেক কালিতে এবং ব্যতিক্রমের উদাহরণ লিখবে আরেক কালিতে। পড়ার সময় এই সিরিয়াল অনুযায়ী পড়বে, সপ্তাহে অন্তত একদিন। দেখবে খুব বেশি কঠিন লাগবে না – সময় শেষে প্রস্তুতিও হবে ঝরঝরে।

English Book List for C Unit Admission

গ ইউনিটের বইয়ের তালিকা নিয়ে তেমন ভয় পাওয়ার কোনো কারণ নেই। অনেকেই বলবে TOEFL কিংবা GMAT বই না কিনলে প্রস্তুতি সম্পূর্ণ হবে না। কিন্তু বাস্তবতা হলো, মোটামুটি সবাই-ই TOEFL এবং GMAT বই কেনে।

প্রথম দুই-চার দিন – সর্বোচ্চ এক সপ্তাহ অত্যন্ত উৎসাহের সাথে solve করে, কিন্তু শেষ পর্যন্ত পড়্রে শেষ করতে পারে না – সময়ের অভাব এবং বইয়ের অনেক কনসেপ্ট একটু কঠিন হওয়ার কারণে ঘাবড়ে গিয়ে পুরো বই পড়া শেষ করা হয়ে ওঠে না আর।

তারপর একদিকে অন্য পড়া, অন্যদিকে বই শেষ করতে না পারার জন্য অবচেতন অপরাধবোধ – সব মিলিয়ে মনোবল নষ্ট হয়ে যায় অনেকেরই।

এজন্য আমার পরামর্শ হলো, TOEFL কিংবা GMAT কেনার কোনো দরকার নেই। যে বইগুলো পড়লে প্রস্তুতি সম্পূর্ণ হবে সেগুলোর নাম এবং কীভাবে পড়া উচিত তা আমি নিচে বলে দিচ্ছিঃ

  • প্যারাগন (Paragon) পাবলিকেশন্সের Grammar এবং Vocabulary বই
  • UCC’s Compact English
  • Word Smart I and II

Paragon এবং UCC-এর বইগুলো কিভাবে পড়বো?

Paragon এবং UCC-এর বইগুলোর vocabulary বেশ কিছু অংশে ভাগ করা। প্রতিটি part-এর শেষে কিছু question আছে যা solve করলে কিছু শব্দের ব্যবহার জানতে পারবে। তাই vocabulary পড়ার সময় টেক্সট পড়ার পাশাপাশি এই question-গুলো solve করবে।

Grammar অংশের ব্যাপারেও একই কথা। সংশ্লিষ্ট অধ্যায় ভালোভাবে পড়বে, নোট করবে এবং শেষে অনুশীলন করবে। প্যারাগনের বইয়ের শেষে GMAT, TOEFL, Murphy’s ইত্যাদি আন্তর্জাতিক মানের বই থেকে কিছু question তুলে দেওয়া আছে। মূল বই ভালোভাবে পড়া শেষ হলে সেসব question তুমি solve করতে পারো।

Word Smart নিয়ে কিছু কথা

Word Smart I and II বইটি অন্যরকম একটি বই। Vocabulary পড়ার বিভিন্ন নিয়ম এই বইয়ের শুরুতেই লেখকরা লিখে দিয়েছেন। এটি মূলত vocabulary-এরই বই।

এখানে প্রতিটা শব্দ উদাহরণসহ এবং কোনো বিশেষ ব্যবহার থাকলে সেটার উদাহরণসহ দেওয়া আছে। মোট কথা, আমার দেখা vocabulary পড়ার সবচেয়ে সহজ বই Word Smart I and II-কেই বলবো। হাতে সময় না থাকলে অবশ্য শুধু Word Smart 1 পড়লেই চলবে।

Websites and Apps

পড়ার সময় এমন অনেক জিনিসই পাবে যা সলভ করতে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো শিক্ষকের কাছে যাওয়া তোমার পক্ষে সম্ভব হবে না। তখন ইন্টারনেটই তোমার ভরসা।

তাছাড়া দৈনিক অনুশীলনের জন্যও কোনো অ্যাপ থাকলে খারাপ হয় না। তোমরা এই ক্ষেত্রে Magoosh অ্যাপটি ফোনে রাখতে পারো।

এছাড়াও এই ওয়েবসাইটগুলোতে নিজেদের প্রশ্নের উত্তর পেতে পারো এবং তাদের পোস্ট করা কন্টেন্ট দেখতে পারো

আমরা কিভাবে তোমাকে সাহায্য করতে পারি

Tickright তোমাকে দিচ্ছে একটি অনন্য সুযোগ – নিজের প্রয়োজনমত পরীক্ষার প্রশ্ন ডিজাইন করে পরীক্ষা দিয়ে নিজের প্রস্তুতি যাচাই করার সুযোগ। সেই সাথে পারবে অন্যদের নম্বরের সাথে নিজের নম্বরের তুলনা করে দেখার সুবিধা।

Tickright এ আরো আছে প্রতিটি বিষয়ের উপর সংক্ষিপ্ত lesson, যা ওই বিষয়টির ব্যাপারে তোমার ধারণাকে আরো পরিষ্কার করবে এবং তোমার প্রস্তুতি আরো নিখুঁত হয়ে উঠবে। Lesson সম্পন্ন করে তারপর পরীক্ষা দিলেই বুঝতে পারবে কতটুকু বুঝেছো বিষয়টা।

মোট কথা, Tickright হচ্ছে তোমার নিজের প্রয়োজনমত সময়ে নিজের সুবিধামত প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য তোমার Customizable Virtual Platform। বারবার পরীক্ষা দিয়ে এবং অনুশীলন করে তুমি যেন সেরা প্রস্তুতি নিতে পারো – সেই যাত্রায় তোমার পাশে আছি আমরা।

So, What’s Next?

এই ব্লগে গ ইউনিটের ইংরেজির MCQ অংশটি নিয়ে লেখা হয়েছে। লিখিত পরীক্ষা নিয়ে  লেখা হবে আরেকটি ব্লগে। লেখাটি সময়মত পেতে Tickright Blog এ Subscribe করতে পারো

আগামী ব্লগে আমরা আসছি গ ইউনিটের বাংলা  বিষয়ের প্রস্তুতি সম্পর্কে গাইডলাইন দিতে। নবম-দশম শ্রেণির বাংলা ব্যাকরণ বই হাতে তুলে নেওয়ার সময় এই ভর্তি পরীক্ষার মৌসুম। সাথে থাকছে এইচএসসিতে শেখা ব্যাকরণ।

এতকিছু সামলে কীভাবে বাংলায় ভালো প্রস্তুতি নেওয়া যায় – জানতে হলে চোখ রাখো আমাদের পরবর্তী ব্লগে।

প্রশ্ন থাকলে করে ফেলো। আমরা আছি।